আমাদের পেকুয়া নিউজপেকুয়ায় সহকারী শিক্ষকের কিল, ঘুষিতে আহত প্রধান শিক্ষিকা | আমাদের পেকুয়া নিউজ পেকুয়ায় সহকারী শিক্ষকের কিল, ঘুষিতে আহত প্রধান শিক্ষিকা | আমাদের পেকুয়া নিউজ

পেকুয়ায় সহকারী শিক্ষকের কিল, ঘুষিতে আহত প্রধান শিক্ষিকা

প্রকাশ: ২০২০-০২-০৪ ১৩:১৫:২৩ || আপডেট: ২০২০-০২-০৪ ১৩:১৫:২৭

বিশেষ প্রতিবেদক:

পেকুয়া উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নে বিলকিছ ফরিদা নামে এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকাকে কিল, ঘুষি মেরে আহত করলেন একই স্কুলের সহকারী শিক্ষক মোঃ শিহাবুল ইসলাম।

আহত শিক্ষিকা পেকুয়া সরকারি জিএমসি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পেকুয়া সদর ইউনিয়নের শেখের কিল্লা ঘোনার মাষ্টার জহির উদ্দিনের স্ত্রী এবং অভিযুক্ত শিক্ষক আদর্শ পাড়ার সাইফুল ইসলামের ছেলে। তারা দুইজনই পশ্চিম উজানটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে স্কুল মাঠে প্রকাশ্যে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত প্রধান শিক্ষিকাকে পেকুয়া সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সিএনজি ড্রাইভার কালু জানান, স্কুলে যাওয়ার জন্য সকালে পেকুয়া বাজার থেকে দুইজনই আমার সিএনজি গাড়িতে ওঠে। পশ্চিম উজানটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে যখন সিএনজি গাড়িটি থামে তখন দুইজনই ভাড়ার জন্য ৫০টাকার নোট দেন। আমি মহিলা শিক্ষককে গাড়ি ভাড়ার টাকা রেখে বাকি টাকা প্রথমে পরিশোধ করি। খুচরা টাকা না থাকায় অপর পুরুষ শিক্ষককে বাকি টাকা দিতে কিছুটা সময় হচ্ছিল। ওই সময় পুরুষ শিক্ষক শিহাবুল ইসলাম প্রধান শিক্ষক বিলকিছ ফরিদাকে আগে কেন টাকা নিয়েছিছ বলে কিল, ঘুষি মারতে থাকেন। এক পর্যায়ে শিক্ষিকা মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করেন।

ওই সময় উপস্থিত স্থানীয় কয়েকজন ব্যক্তি বলেন, প্রধান শিক্ষিকা মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্কুলের সভাপতি ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলামসহ আরো বেশ কয়েকজন ব্যক্তি সহকারী শিক্ষক শিহাবুল ইসলামকে বেদড়ক পিটুনি দেন। পিটুনি খেয়ে সহকারী শিক্ষক স্কুলের উপরে দৌঁড়ে চলে যান। হাজিরা খাতা নিয়ে মঙ্গলবার ও বুধবারের হাজিরায় সাক্ষর করে দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন।

প্রধান শিক্ষিকা বিলকিছ ফরিদা বলেন, আমি গাড়ি থেকে নামার পর কোন কথা ছাড়াই আমাকে মারধর করে। বিষয়টি আমি তাৎক্ষনিকভাবে শিক্ষা কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের বেশ কয়েকজনকে অবগত করেছি।

আরও পড়ুন  পেকুয়ায় নিখোঁজ যুবকের মরদেহ মিললো খালে

সেই এর আগেও বেশ কয়েকজন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীকে মেরে আহত করলেও কোন ব্যবস্থা নেয়নি শিক্ষা দপ্তর ও স্কুল পরিচালনা কমিটি। সেই বারবার বলে তার কোন এক আত্বীয় সচিবালয়ে আছে। তার কিছুই করতে পারবে না বলে বিভিন্ন সময় বেপরোয়া আচরণ করে থাকে।

স্কুল কমিটির সভাপতি সাইফুল ইসলাম সহকারী শিক্ষককে মারধরের কথা অস্বীকার বলেন, প্রধান শিক্ষক তার হামলায় আহত হয়ে হাসপাতালে আছেন। এর আগেও সহকারী শিক্ষক শিহাবুল ইসলাম শিক্ষার্থী ও শিক্ষকে মারধর করেছেন। আমরা বিভিন্নবার শিক্ষা কর্মকর্তাকে এবিষয়ে অবগত করেছি। তারপরও কোন ব্যবস্থা নেয়নি। সর্বশেষ তাকে বদলি করে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার জন্য বললেও অদৃশ্য কারণে তার কোন সুরহা হয়নি।


শিক্ষা কর্মকর্তা সালামত উল্লাহ খান বলেন, প্রধান শিক্ষককে মারধরের বিষয়টি আমি শুনেছি। অভিযোগ দিলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাঈকা সাহাদাত বলেন, আমাকে এবিষয়ে অবগত করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ট্যাগ :

মুজিব শতবর্ষ সময় গণনা
21 days 18 hours 24 minutes 31 seconds

নামাজের সময় সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৫:১৬
  • ১২:১৬
  • ১৬:১৯
  • ১৮:০০
  • ১৯:১৪
  • ৬:২৮

আবহাওয়া

APN এর সাথে কক্সবাজারের আবহাওয়া

রামিস্ কিচেনে সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত পরিবেশে স্বাস্থ্যসম্মত ও সূলভ মূল্যে বাংলা, ইন্ডিয়ান, থাই ও চাইনিজ ফাষ্ট ফুড পাওয়া যায়। এস.ডি সিটি সেন্টার, দ্বিতীয় তলা, আলহাজ্ব কবির আহমদ চৌধুরী বাজার।

error: কপি করা আইনত অপরাধ